Home / The Daily Star / The Daily star Editorial : 16-06-16

The Daily star Editorial : 16-06-16

The Daily star Editorial : 16-06-16

Train services remain poor
নিম্নমানের ট্রেন সেবা
Justify the fare hike
ভাড়া বৃদ্ধির যৌক্তিকতা নিশ্চিত করুন।

Although nearly three and half months have elapsed since the government increased the train fares, the railway services remain horribly poor as were in the past.
সরকার কর্তৃক ট্রেনের ভাড়া বৃদ্ধির সাড়ে তিন মাস অতিবাহিত হলেও বর্তমানে রেলের সেবার মান আগের থেকেও আরো নিম্ন অবস্থায় রয়েছে।
There is not adequate number of trains, and commuters suffer from frequent disruption of train schedule.
পর্যাপ্ত ট্রেন না থাকায় যাত্রীদের প্রায় সময়ই সিডিউল বিপর্যয়ের ভোগান্তি ভোগ করতে হয়।
On top of all this, existing train compartments are not fit for use as the seats are torn and toilets filthy and bug infected.
এছাড়াও সিটের কাপড় ছিঁড়া এবং টয়লেট নোংরা ও দুর্গন্ধযুক্ত থাকায় ট্রেনের কম্পার্টমেন্টগুলো ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।
Despite being one of the cheapest, safest and sustainable public transport systems the railway sector has never received the due attention from the authorities.
সবচেয়ে সস্তা , নিরাপদ ও টেকসই গণ পরিবহনসমূহের মধ্যে অন্যতম হওয়া সত্ত্বেও রেলওয়ে খাতে সরকারের কখনই সুদৃষ্টি পড়েনি ।

Due to lack of investment, improvement plan and corruption it is struggling to survive in the face of competition from other transport systems.
বিনিয়োগ ও সুষ্ঠু পরিকল্পনার অভাব এবং দুর্নীতির কারণে অন্যান্য পরিবহণ ব্যবস্থার সাথে নিজের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার প্রতিযোগিতায় রেলওয়ে প্রতিনিয়তই সংগ্রাম করে যাচ্ছে।
There is also vested interest of transport businesses behind this sheer disregard.
রেলের এই বেহাল দশার পিছনে পরিবহন বাণিজ্যের কিছু ব্যক্তির হীন স্বার্থও জড়িত।

Though the general people are interested to use this mode of travel, the poor condition of railway services hardly encourages people to opt for train rides over bus rides on long-distance routes.
যদিও সাধারণ জনগণ দীর্ঘ ভ্রমণে যাওয়ার জন্য রেলকেই বেশি পছন্দ করে তথাপিও রেলের সেবার মান নিম্ন হওয়ায় কদাচিতই বাস ভ্রমণের চেয়ে ট্রেন ভ্রমণকে বেছে নেয়।

In the present case, commuters are not getting promised improved services despite bearing increased train fares.
বর্তমানে যাত্রীরা বাড়তি ভাড়া গোনার পরও প্রত্যাশিত সেবা পাচ্ছেন না ।

Moreover, now the government has a plan to readjust the train fares every year. Earlier, train fares used to increase after 10-15 years.
অধিকন্তু,আগে যেখানে ১০-১৫ বছর পর ভাড়া বাড়া হত সেখানে বর্তমানে সরকার প্রতিবছর ভাড়া বাড়ানোর একটি পরিকল্পনা করেছেন ।

If the services remain poor then there is little justification for putting extra burden on general public.
সেবার মান যদি নিম্নই থাকে তাহলে জনগণের বাড়তি ভাড়া গোনার কোন যৌক্তিকতা থাকে না ।

We believe that there is no reason why Bangladesh railway cannot be turned into a profitable entity if proper modernisation initiatives are undertaken to improve the performance of a system that the vast majority of the middle income group would chose over other modes to commute long distance.
যদি রেলের দক্ষতা ও সেবার মান উন্নতির জন্য আধুনিক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয় তাহলে মধ্যম আয়ের অধিকাংশ মানুষ দীর্ঘ ভ্রমণের জন্য ট্রেনকে বেছে নেবে।ফলে বাংলাদেশ রেলওয়েকে একটি লাভ জনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার পিছনে কোন বাধা থাকবে না বলে আমরা বিশ্বাস করি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *