Home / The Daily Star / The Daily star Editorial : 04-06-16

The Daily star Editorial : 04-06-16

The Daily star Editorial : 04-06-16

অনুবাদ চর্চা
বিসিএস রিটেন অনুবাদ ৬৫!রচনায় ৫০ যা নির্ভর করবে অনুবাদ করা/ free hand writing দক্ষতার উপর, বাংলাদেশ ব্যাংক এডিতে ৫০!পিএসসির নন ক্যাডার জব ও সরকারী ব্যাংকে ১০-২০। নিয়মিত চর্চার বিকল্প নাই
আজকের The Daily Star সম্পাদকীয়
,
Meeting the revenue target
রাজস্ব আদায় লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে উদ্যোগী হোন
Tough times ahead
সামনে অনেক চ্যালেঞ্জ
The government’s focus on mega projects, skills development and job creation are commendable.
সদ্য ঘোষিত বাজেটে সরকার মেগা প্রকল্পসমূহ , টেকসই উন্নয়ন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে বিশেষ গুরুত্বারোপ করেছে যা সত্যিই প্রশংনীয়।
However meeting the revenue target will be difficult according to experts, especially since the national board of revenue (NBR) now has the uphill task of collecting taxes to meet a budget that is more than a third larger than last year’s.
যাহোক, বিশেষজ্ঞদের মতে এবারের বাজেটের রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন কঠিন হয়ে পড়বে কেননা গত অর্থবছরের তুলানায় এবার ৩গুণের অধিক পরিমাণ রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের জন্য দুরহ ব্যাপার ।

Although new taxation levied on tobacco products is a welcome move, we are not so sure how the new levy on mobile phone users that will help matters as we believe it will work contrary to creating a digital Bangladesh.
যদিও তামাক জাত পণ্যে অতিরিক্ত করারোপ করা হয়েছে যা অবশ্যই ভালো উদ্যোগ তারপরেও আমরা বিশ্বাস করতে করতে পারছি না ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান মোবাইল ফোনের উপর কিভাবে নতুন করে করারোপ করা হয় যা আত্মঘাতি বলে আমরা মনে করি।

Although the wealthy may be taxed more under the new regime, it all boils down to collection.
আবার নতুন কর আইনে বিত্তশালীদের আরো অধিক পরিমাণ কর দিতে হবে তথাপিও রাজস্ব আদায় সকল পরিকল্পনাকে নস্যাত করে দেয় ।

The new VAT Act has not been accepted by the business community and its implementation has been deferred till January 2017 and there is no guarantee it will be popular then too.
নতুন ভ্যাট আইন ব্যবসায়ী সম্প্রদায় কাছে গ্রহণযোগ্য হয় নি তাই এটি ২০১৭সালের জানুয়ারী পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে কিন্তু পরে এটি গ্রহণযোগ্য হবে সে বিষয়ে কোন নিশ্চয়তা নাই।
With half the year gone, precisely how the targeted budget will be met from VAT is suspect.
বছরের অর্ধেক শেষ হওয়ার পর ভ্যাট থেকে কিভাবে অবশিষ্ট লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে সে বিষয়ে আমরা সন্দিহান ।

It is good that budgetary allocations have increased on education and technology (+ 34.55%), social safety net programmes, etc.,
শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাতে( ৩৪.৫৫% বেশি ) এবং সামাজিক নিরাপত্তাখাত সহ বেশ কিছু খাতে বাজেটে বরাদ্দ বৃদ্ধি করা হয়েছে যা ইতিবাচক বলে আমরা মনে করি ।

However, with increases in allocation, we keep coming back to revenue collection and NBR is to generate 35.8% from VAT, which will be implemented in the remaining six months of the fiscal year.
অতএব, বিভিন্ন খাতে বরাদ্দ বৃদ্ধির পাশাপাশি আমাদের রাজস্ব আদায়ের দিকেও দৃষ্টি দেওয়া উচিত কেননা এই অর্থবছরের অবশিষ্ট ৬মাসে এনবিআরকে ভ্যাট থেকে ৩৫.৮% রাজস্ব আদায় করতে হবে।

An almost equal chunk is slated to come from taxation.
কর আদায়েরও প্রায় একই দশা ।

We conclude raising the same question that revenue collection is seemingly unrealistic since NBR managed to achieve 15% revenue collection in the first nine months of the last fiscal (up to March) against a target of 30% growth.
পরিশেষে আমরা বলতে চাই , গত অর্থ বছরের ১ম নয় মাসে ( মার্চ পর্যন্ত ) এনবিআর যেখানে লক্ষ্যমাত্রার ১৫% রাজস্ব আদায় করে সেখানে ৩০% প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দেওয়া আপাত দৃষ্টিতে অবাস্তব ।

This year the body has been tasked with collecting Tk53,000 crore (a rise of 35% over last year) and precisely how that will be achieved remains a big question.
সর্বপরি ,এই প্রতিষ্ঠানকে এই বছরে ৫৩০০০ কোটি টাকা ( গত বছরের চেয়ে ৩৫% বেশি) রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দেওয়া হয়েছে যা অর্জনের বিষয়ে আমরা স্বাভাবিকভাবেই সন্দিহান।

[X]
Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *