Home / BCS Tips / ৩৭তম Written গণিতের পূর্ণাঙ্গ সাজেশন, কষ্ট করে পড়ুন । আশা করি কাজে লাগবে

৩৭তম Written গণিতের পূর্ণাঙ্গ সাজেশন, কষ্ট করে পড়ুন । আশা করি কাজে লাগবে

#৩৭তম [Written- ম্যাথ ] [ পড়তে কষ্ট হলেও কষ্ট করে পড়ুন । আশা করি কাজে লাগবে ]

৩৫,৩৬ তম রিটেন প্রশ্নের আলোকে ম্যাথ সিলেবাসের প্রতিটা পার্ট নিয়ে আলোচনা করা হল এবং সম্ভাব্য বইয়ের লিস্টও প্রতিটা পার্টের আলোকে দিয়ে দেওয়া হল।

========================================
৩৭তম প্রিলি টাই পাশ করব কি না জানি না ।তবুও ম্যাথ প্রশ্ন এনালাইসিস করলাম । ৩৬তম তে সিলেবাসের টপিক অনুসরণ করে করা হয়েছে বটে ,তবে কোন কোন টপিকসকে অনেক গুরুত্ব দিয়ে একাধিক প্রশ্ন করা হয়েছে ।
দেখা যাচ্ছে একটা টপিক থেকে ৫ মার্কের প্রশ্ন করার কথা ছিল । কিন্তু করা হয়েছে ১০ মার্কের । আবার কিছু টপিক একে বারে বাদ দেওয়া হয়েছে এই বার । হা, ৩৫তম এর প্রশ্নে প্রতিটা টপিক টাস করে ম্যাথের প্রশ্ন সাজানো হয়েছিল ,কিন্তু ৩৬ এ তা করা হয়নি । আসুন দেখি ম্যাথের হালচাল । [ ভুল ত্রুটি ক্ষমা সুন্দর ভাবে দেখবেন আশা করি ] প্রশ্নালোচনা – সমালোচনা এবং বইয়ের লিস্টঃ
==============================
১। [ সিলেবাস- পার্ট ১১ এবং ১২ ( সেট , বিন্যাস ,সমাবেশ ,সম্ভাবনা ) ] ———————————————————————–
#৩৫তম এবং #৩৬তম- সেট,বিন্যাস,সমাবেশ,সম্ভাবনা থেকেই ৪ টা প্রশ্ন করা হয়েছে [ ৬ এবং ১৪ নং সেট , ৭ নং বিন্যাস , ৮ নং সম্ভাবনা ] , যা ২০ মার্ক বহন করছে।আমরা সবাই জানি বহু ভাই বোন এই টপিক বাদ দিয়েছিলেন ৩৬তম তে , বিশেষ করে বিন্যাস সমাবেশ সম্ভাবনাকে । এতে বিশাল ধরা খেয়েছেন ।এখন মিলিয়ে নিন ৩৫তম এর প্রশ্নের সাথে , দেখতে পাবেন ৩৫তম তে ২ টা প্রশ্ন এসেছে [ প্রশ্নে ১১ নং এ সেট , ১২ নং এ সম্ভাবনা ] —–৩৬তম তে এই ৪টা প্রশ্ন সিলেবাসের ১১ এবং ১২ নং পার্ট থেকে এসেছে —–
—–৩৫তম তে এই ২ টা প্রশ্ন সিলেবাসের ১১ এবং ১২ নং পার্ট থেকে এসেছে —–
[ বিঃদ্রঃ ৭ নং প্রশ্নের ক নং এ ২.৫ মার্কের একটা ধারার অংক প্রবেশ করিয়ে দিয়েছে । যা সিলেবাসের ৬ নং পার্ট থেকে আসছে । আবার অনেকেই ৬ নং প্রশ্ন সেট বা ভেনচিত্র দিয়ে করেন না । তবে ৬ নং প্রশ্ন ভেনচিত্র / সেট দিয়ে দ্রুত করা যায় এবং অতি সহজে । এটা সিলেবাসের পার্ট ১১ নং এর ভিতর ধরা হল ] বইঃ
** ক্লাস ১১-১২ এর ম্যাথ বই । সাথে পাঞ্জেরি সমাধান । [ বিন্যাস সমাবেশ সম্ভাবনার জন্য ] ** ক্লাস ৯-১০ এর সাধারণ গণিত এবং উচ্চতর গণিত ( সেট এবং ভেনচিত্র )
** যে কোন একটা গাইড [ ওরাকল । সম্ভব হলে এসিওরেন্স গাইডও রাখতে পারেন ] ২। [ সিলেবাস -পার্ট ৭,৮,৯ ( জ্যামিতি ) ] —————————————–
#৩৬তম – জ্যামিতি থেকে আসা প্রশ্ন দেখুন , সরাসরি ৩ টা প্রশ্ন করেছে [ ১০,১১,১৩ নং প্রশ্ন দেখুন ] । যা ১৫ মার্ক ,যা সিলেবাসের ৭ নং টপিক থেকে । জ্যামিতি থেকে অংক টাইপের ৫ মার্কের প্রশ্ন করেছে ১ টা মাত্র [ প্রশ্ন নং ১২ দেখুন । শুধু তাই নয়, ২ নং প্রশ্নের খ নং দেখুন আয়তক্ষেত্রের থেকে প্রশ্ন এসেছে কিন্তু ক নং ছিল সমীকরণ থেকে এটা মিক্সড প্রশ্ন যা বীজগণিত এবং জ্যামিতি টাস করেছে। এবার নিশ্চয় আপনারা বুঝতে পারছেন । ] ।
#৩৫তম- ৩৫তম তে জ্যামিতি থেকে সরাসরি প্রশ্ন করেছে মাত্র ১ টা [ প্রশ্ন নং ৮ ] যা সিলেবাসের ৭ নং টপিক টাস করেছে অথচ জ্যামিতি থেকে অংক টাইপের প্রশ্ন করেছে ২ টা , যা সিলেবাসের ৮,৯ নং টপিকস টাস করে গেছে । তার মানে সিলেবাসের ৭,৮,৯ নং পার্ট থেকে ৩ টা করে প্রশ্ন দিয়েছে ।
——-জ্যামিতি এবং জ্যামিতি টাইপের সকল প্রশ্ন সিলেবাসের ৭,৮,৯ নং পার্ট থেকে আসছে এবং আসবে ——
——নিশ্চিত ভাবে আপনি সিলেবাসের ৭,৮,৯ নং পার্ট থেকে ১৫-২০ মার্ক কমন পাবেন—–
বইঃ
** ক্লাস ৯-১০ এর জ্যামিতি বই ( সাধারণ গণিত এবং উচ্চতর গণিত )। অবশ্য ক্লাস ৮ এর জ্যামিতিও দেখতে ভুলবেন না ।
** ক্লাস ১১-১২ এর জ্যামিতি বই [ অপশনাল । চাইলে পড়তে পারেন । না হলে বাদ দিতে পারেন ] ** যে কোন একটা গাইড বই [ওরাকল । সম্ভব হলে এসিওরেন্স গাইডও রাখতে পারেন ] ৩। [ সিলেবাস- পার্ট ১০ (ত্রিকোণমিতি ) ] —————————————–
#৩৬তম- রিটেনের ৯ নং প্রশ্ন দেখুন ২ টা অংক দিয়েছে । ত্রিকোণমিতির সহজ অংক বলা চলে । ক্লাস ৯-১০ এর সাধারণ গণিত এবং উচ্চতর গণিত থেকে গুছিয়ে করলে নিশ্চিত ভাবে ৫ মার্ক প্রতিবার পাবেন । আমার যত টুকু মনে হয় এই পার্ট থেকে কঠিন প্রশ্ন দিবে না ।
#৩৫তম- ত্রিকোণমিতি থেকে কোন প্রশ্ন আসেনি ।
—- ভালো মত সিলেবাসের ১০ নং পার্ট করলে ৫ মার্ক নিশ্চিত পাবেন, এই পার্ট থেকে প্রতিবার প্রশ্ন আসবে —–
বইঃ
** ক্লাস ৯-১০ এর সাধারণ গণিত এবং উচ্চতর গণিত
** যে কোন একটা গাইড [ওরাকল । সম্ভব হলে এসিওরেন্স গাইডও রাখতে পারেন ] ৪। [ সিলেবাস – পার্ট ১,৩,৪ ( বীজগণিত ) ] ———————————————-
#৩৬তম – ১,৩,৪ নং পার্ট বীজগণিতের সকল অধ্যায় কাভার করছে । দুঃখের কথা এই পার্টের সিলেবাস থেকে যে সব প্রশ্ন ৩৬তম তে পড়েছে যা সাধারণ গণিত থেকে চর্চা করে খুব একটা সম্ভব না ,যদি না বেসিক শক্ত না থাকে । ক্লাস ৯-১০ এর উচ্চতর গণিতেও হাত লাগাতে হবে । শুধু তাই নয় , বেসিক ভালো থাকতে হবে । প্রশ্ন একটু ঘুরিয়ে প্যাঁচ দিয়ে দিচ্ছে ।
প্রশ্নে দেখুন ১ ,২,৩ এসেছে সিলেবাসের পার্ট ১,৩,৪ থেকে । তবে ২ নং প্রশ্নের ক তে সমীকরণ এবং খ তে জ্যামিতির অংক । প্রতিবার বীজগণিত অংশ থেকে আপনি নিশ্চিত ১৫ মার্ক পাবেন , মানে ৩ টা প্রশ্ন।
#৩৫তম – দেখুন ৪ ,৫ ,৭ নং প্রশ্ন । যা ১৫ মার্ক ।
——- ১,৩,৪ নং পার্ট থেকে নিশ্চিত ১৫ মার্ক পাবেন । ——–
বইঃ
** ক্লাস ৯-১০ এর সাধারণ গণিত এবং উচ্চতর গণিত । পাঞ্জেরী সমাধান রাখতে পারলে ভালো ।
** যে কোন একটা গাইড [ওরাকল । সম্ভব হলে এসিওরেন্স গাইডও রাখতে পারেন ] ৫। [ সিলেবাস – পার্ট ৫ ( সূচক এবং লগ ) ] ———————————————
#৩৬তম- কোন প্রশ্ন আসেনি । ৩৭তম তে নিশ্চিত আসবে ধরা যায় ।
#৩৫তম – ৬ নং প্রশ্নে লগের একটা অংক এসেছে । ৫ মার্ক ।

বইঃ
** ক্লাস ৯-১০ এর সাধারণ গণিত এবং উচ্চতর গণিত
** ** যে কোন একটা গাইড [ওরাকল । সম্ভব হলে এসিওরেন্স গাইডও রাখতে পারেন ] ৬। [ সিলেবাস –পার্ট ২ ( পাটিগণিত ) ] —————————————
#৩৬তম- ৪ এবং ৫ নং প্রশ্ন দেখুন । পার্ট ২ থেকে এই ২টা প্রশ্ন এসেছে । কিন্তু এই ২ টার প্রশ্নের ভিতর ৪ টা অংক আছে । যা ২,৩ মার্ক করে পাবেন প্রতিটা অংকের জন্য । আসল কথা কি জানেন , পাটিগণিতের অংক মানে শতকরা ,লাভ ক্ষতি ও মুনাফা মিলিয়ে হাজারের উপরে অংক আছে । অনেকের ক্ষেত্রে দেখা যায় এই পার্টের উপর এতো বেশি গুরুত্ব দেন যে অন্য পার্টের উপর গুরুত্ব কমে যায় । যা একটা লস প্রোজেক্ট ।
#৩৫তম- ১,২,৩ নং প্রশ্ন দেখুন । এই ৩ টা প্রশ্ন ৩৬ এর তুলনাই অনেক কঠিন । নতুন সিলেবাসের ক্ষেত্রে প্রথম ম্যাথ প্রশ্নে সিলেবাসের একটা পার্ট থেকে ৩ টা প্রশ্ন দেওয়া খুব বাজে সিদ্ধান্ত ছিল । তবে ৩৬ এ ২ টা প্রশ্ন দিয়ে সিলেবাসের অন্য পার্টের টপিকের সাথে সমন্বয় করেছে ।
বইঃ
** ক্লাস ৭ – গণিত বই
** ক্লাস ৮ – নতুন এবং পুরাতন সমাধান সহ
**** ** যে কোন একটা গাইড [ওরাকল । সম্ভব হলে এসিওরেন্স গাইডও রাখতে পারেন ] এখানে পি এস সি কি বুঝাতে চাচ্ছেন তা খুব ভালো ভাবেই পরিষ্কার হয়ে গেছে । আসলে আমাদের কোন টপিক ছেড়ে দেওয়া ঠিক হবে না । আপনার সক্ষমতার উপর নির্ভর করে ২-১ টা টপিক বাদ দিতে পারেন। প্রতিটা টপিকের উপর আপনার দক্ষতা থাকতে হবে । তবে সুখের কথা হল , এবার ৩৬তম তে ১৪ টা প্রশ্ন দিয়েছে , গত ৩৫তম তে ছিল ১২ টা প্রশ্ন। যা থেকে আপনাকে ১০ টা উত্তর করতে হবে ।
দেখা গেল , আপনি যে টপিক ছাড়লেন ,সেই টপিক থেকে ২ টা প্রশ্ন করল । তাই কোন টপিক ছেড়ে দেওয়া উচিৎ না । তবে কিছু কিছু টপিক আছে যে গুলো এত বেশি গুরুত্বপূর্ণ যা গিলে হজম করে আবার গিলে আবার হজম করে ছাড়া উচিৎ ।
ধন্যবাদ
শেষ কক্ষপথের প্রোটন ( মেহেদি হাসান )

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *