Home / Study tips / যে ৫টি ভুলের কারণে আপনি পিছিয়ে আছেন

যে ৫টি ভুলের কারণে আপনি পিছিয়ে আছেন

যে ৫টি ভুলের কারণে আপনি পিছিয়ে আছেন

চারপাশে দিন দিন হতাশ শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়ছে । নিজেদের অবস্থান, উন্নতি নিয়ে প্রায় সব শিক্ষার্থীই হতাশ । কেন বছরের পর দৃশ্যমান কোন উন্নতি চোখে পড়ছে না, এই প্রশ্ন আমাদের মধ্যে অনেকেরই । দেশ- বিদেশের বিভিন্ন ব্লগ-আর্টিকেল অবলম্বনে পাঁচটি কারণ এখানে তুলে ধরা হচ্ছে ।

১। সময় নষ্ট করা

৮০ ভাগ শিক্ষার্থী সময় খরচ করার ব্যাপারে কৃপণতার পরিচয় দেয় না । এদিকে সেদিকে অনেক অপ্রয়োজনীয় সময় নষ্ট করে । এর ফলে লেখাপড়ার পেছনে যথেষ্ট সময় দেয়ার আগ্রহ কমে যায় ।

শুধু লেখাপড়া না অপ্রয়োজনীয় খাতে সময় নষ্ট হলে অত্যন্ত আবশ্যকীয় কাজগুলোতে সময় দেয়ার অনুপ্রেরণা চলে যায় ।

 

২। জীবনে নির্দিষ্ট লক্ষ্য না থাকা

আমি কি করতে চাই, কেন করতে চাই, ২০ বছর পর নিজেকে কোন অবস্থায় দেখতে চাই, এই প্রশ্নের উত্তর ৯০ ভাগ শিক্ষার্থীই জানে না । আমাদের লাইফের গোল সেট হয় চলমান ট্রেন্ডের উপর ভিত্তি করে ।

সবাই বিসিএস দিচ্ছে আমাকেও দিতে হবে, সবাই আইবিএতে পরীক্ষা দিচ্ছে আমাকেও দিতে হবে , আমার অমুক ফ্রেন্ড মাস্টার্স করতে বাইরে যাচ্ছে আমাকেও যেতে হবে ।

ঝোঁকের বসে নেয়া এসব সিদ্ধান্ত অনেক সময় শিক্ষার্থীদের জন্য কাল হয়ে দাঁড়ায় । দেখা গেল, সে বিসিএস চাকরীর জন্য তৈরী ছিল না, তাই জয়েন করার পর কোনভাবেই আর মন বসছে না ।

আমার পরিচিত অনেকেই মাস্টার্স করতে গিয়ে ফেরত এসেছে, আগ্রহ হারিয়ে ফেলার কারণে ।

 

৩। ভালো সংগে সময় ব্যায় না করা

এটার গুরুত্ব যে কতটুকু তা বলে বোঝানো যাবে না । স্মার্ট, বুদ্ধিমান মানুষজন সবসময় সময়ের চেয়ে এগিয়ে থাকে, চোখ-কান খোলা রাখে এবং ক্যারিয়ার ওরিয়েন্টেড থাকে ।

ফলে তারা সব সময় প্রোডাক্টিভ কাজকর্মে নিজেদের ব্যাস্ত রাখে । তাদের সাথে থাকতে পারলে আপনার ক্যারিয়ারেও পসিটিভ চেঞ্জ আসতে বাধ্য ।

অন্য দিকে বাউন্ডুলে, এইমলেস সংগ আপনাকে পুরোপুরি অফট্র্যাক করে ফেলবে । জীবনের বহু মূল্যবান সময় এদের সংস্পর্শে আপনি হারিয়ে ফেলবেন । এই ক্ষতির ধাক্কা অনেক সময় কাটিয়ে উঠা প্রায় অসম্ভব হয়ে যায় ।

 

৪। বই পড়ার অভ্যাস না থাকা বা জ্ঞান অর্জনের অনাগ্রহ

আমাদের দেশের খুব বাজে ১টা কনসেপ্ট হচ্ছে যে, আমরা জ্ঞান অর্জন বলতে টেক্সট বুক পড়া বা একাডেমিক পড়াকে বুঝি । প্রকৃত জ্ঞান কখনও টেক্সট বুক থেকে আসবে না ।

বাস্তবমুখী শিক্ষা লাভের জন্য আপনাকে প্রচুর বই পড়তে হবে, দেশ বিদেশের ভালো ভালো লেখক, চিন্তাবিদদের ভাবনাগুলো বুঝতে হবে ।

পৃথিবী কোথায় যাচ্ছে আর আপনি কোথায় আছেন- এটা বোঝার খুব ভালো উপায় হচ্ছে প্রচুর বই পড়া । কিন্তু আমাদের অধিকাংশ শিক্ষার্থীদের এ ব্যাপারে চরম অনাগ্রহ দেখা যায় ।

ভয়াবহ ব্যাপার হচ্ছে অনেকে এ অভ্যাস টাকে সময় নষ্ট মনে করে । এর চেয়ে ক্লিফস টোফেলের গ্রামার বা অফিসিয়াল জিম্যাটের ম্যাথ করাকে বেশী উপকারী মনে করে ।

আমাদের পিছিয়ে থাকার অন্যতম কারণ হচ্ছে এই মানসিকতা ।

 

৫। অনুপ্রেরনামুলক লেখা পড়েন কিত্নু শিক্ষা নেন না

দুঃখজনক হলেও সত্য যে, আমাদের দেশে হতাশ শিক্ষার্থীদের সংখ্যাই বেশী । এজন্য সবাই স্ট্রাগলের গল্প শুনতে পছন্দ করেন, ঘুরে দাঁড়ানোর গল্প শুনতে পছন্দ করেন ।

এতে কোন সমস্যা নেই । কিত্নু আপনি যখন এসব শুনে তৃপ্তি নিয়েই খালাস থাকবেন তখন সমস্যা তৈরী হবে ।

এসব গল্প শুনে যদি শিক্ষা না নেন, নিজে উদ্দ্যমী হয়ে অবস্থা পরিবর্তনের চেষ্টা না করেন, তাহলে আপনি যা ছিলেন তাই থাকবেন এবং হচ্ছেও তাই ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *